44140

বাবার দ্বিতীয় স্ত্রীকে যেভাবে মেনে নেন সালমান

‘হাম দিল দে চুকে সনম’ ছবিতে সালমান খানের মায়ের চরিত্রে অভিনয় করেন সৎমা হেলেন। একসঙ্গে অভিনয় থেকে বোঝা যায়, তাদের সম্পর্ক কতটা সহজ। তবে একসময় বিষয়টি একটু কঠিনই ছিল।

ভাইজানের বাবা হলেন বলিউডের প্রথম সারির চিত্রনাট্যকার সেলিম খান। ৮৪ বছর বয়সী এই ব্যক্তিত্বের জীবনের সবচেয়ে বিতর্কিত অধ্যায় হলো দ্বিতীয় বিয়ে।

১৯৩৫ সালের ২৪ নভেম্বর ইন্দোরের একটি আফগান পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন সেলিম খান। তরুণ বয়সে বিনোদন দুনিয়ায় ক্যারিয়ার গড়ার সিদ্ধান্ত নেন।

১৯৬০ সালে ‘ভারত’ শিরোনামের একটি সিনেমায় অভিনয় করেন সেলিম খান। পরে অভিনয় থেকে সরে এসে জাভেদ আখতারের সঙ্গে জুটি বেঁধে চিত্রনাট্যকার হিসেবে পাকাপোক্ত জায়গা করে নেন।

১৯৬৪ সালে সুশীলা চরকের সঙ্গে পরিচয় হয় সেলিম খানের। রাজপুত বাবা ও মারাঠি মায়ের সন্তান সুশীলার সঙ্গে দেখা হওয়ার পরই প্রেমে পড়ে যান চিত্রনাট্যকার। পরে তারা বিয়ে করেন। সুশীলা হয়ে যান সালমা খান। তাদের চার সন্তান সালমান, আরবাজ, সোহেল ও আলভিরা।

এসবের মাঝেই বলিউডের জনপ্রিয় ক্যাবারে ড্যান্সার তথা অভিনেত্রী হেলেনের প্রেমে পড়েন সেলিম। ১৯৮০ সালে তারা বিয়ে করেন।

পরিবারে হেলেনের অনুপ্রবেশ কিছুতেই মেনে নিতে পারেননি সালমা ও তার চার সন্তান। বাবার পাশ থেকে সরে গিয়ে মায়ের সঙ্গেই বেশি করে সময় কাটাতে শুরু করেন চার ভাই-বোন। কিন্তু সময় যত গড়াতে শুরু থাকে হেলেনকে নিয়ে তাদের মতভেদ কমে আসে। হেলেন ক্রমেই মায়ের আসন লাভ করেন।

সেলিম ও হেলেন সন্তান হিসেবে অর্পিতা খানকে দত্তক নেন। অর্পিতাকে নিজের বোনের মতোই দেখেন সালমান। ২০১৪ সালে হায়দরাবাদের নিজাম প্যালেসে রাজকীয় অনুষ্ঠান বোনের বিয়ে দেন তিনি। শুধু তাই নয়, বিয়ের পর অর্পিতাকে ১৬ কোটির রুপি একটি বিলাসবহুল বাড়িও কিনে দেন সালমান। ভগ্নিপতি আয়ুশ শর্মাকে দিয়েছেন সিনেমায় অভিনয়ের সুযোগ।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *