44309

প্রিয় দিল্লির কনসার্ট বাতিল করলাম, আমার আসাম কাঁদছে!

বিনোদন ডেস্কঃ নিজ রাজ্য ‘আসাম’ জ্বলছে। এমন উত্তাল সময়ে খোশমেজাজে কনসার্টে মেতে থাকার মানুষ নন তিনি। তিনি আসামের জনপ্রিয় গায়ক অঙ্গরাজ মাহান্ত; তবে তিনি বলিউডে পাপন নামে পরিচিত।

নিজভূমের এমন বিপদের মুহূর্তে দিল্লিতে নিজের শো-ই বাতিল করে দিলেন। তার কথায়, ‘রাজ্যের চতুর্দিকে কারফিউ জারি হয়েছে। আর যার কারণে আসাম জ্বলছে, কাঁদছে!’

শুক্রবার দিল্লির ইমপারফেক্টো শোরে শো ছিল পাপনের। কিন্তু সেই শো’তে তিনি যাবেন না। আসামের কঠিন পরিস্থিতির কারণেই এই অনুষ্ঠান বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলিউডের এই নামী গায়ক।

আসামের এই পরিস্থিতি নিয়ে বেশ কয়েকটি টুইট করেছেন অঙ্গরাজ। টুইটে তিনি লিখছেন, ‘প্রিয় দিল্লি, আমি খুবই দুঃখিত যে, আগামীকালের কনসার্টটি আমি বাতিল করছি। দিকে দিকে কারফিউয়ের কারণে আমার রাজ্য আসাম কাঁদছে, জ্বলছে। এই অবস্থায় আমি মানুষকে বিনোদন দেয়ার মতো অবস্থাতে নেই।’

টুইটে পাপন আরো যোগ করেন, ‘আমি জানি ব্যাপারটা খুবই বেমানান। কারণ ইতিমধ্যেই অনেকে টিকিট কেটে ফেলেছেন। আশা করি শো’য়ের অর্গানাইজাররা সেই দিকটায় খেয়াল রাখবেন। তবে আপনাদের আশ্বাসিত করছি, আর একদিন ওখানেই অনুষ্ঠান করব। আপনারা আমার অসুবিধাটা বোধহয় অনুধাবন করতে পারছেন।’

বিতর্কিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের প্রতিবাদে এখনো জ্বলছে উত্তর-পূর্ব ভারত। আসাম-ত্রিপুরাতে সেনা নামিয়েও পরিস্থিতি এখনো নিয়ন্ত্রণে আনতে হিমশিম খাচ্ছে প্রশাস। আসামে হিংসাত্মক বিক্ষোভের মধ্যেই জনতার রোষের মুখে শাসক দল বিজেপির নেতা-মন্ত্রীরা। আসামের মুখ্যমন্ত্রী সর্বানন্দ সোনওয়াল, গুয়াহাটির বিজেপি সাংসদ কুইন ওঝার পরে এবার নিশানায় কেন্দ্রীয় মন্ত্রী রামেশ্বর তেলি।

আর ঠিক এমনই সময়ে বলিউডের বিখ্যাত এক গায়ক যিনি আসামের ভূমিপুত্র, তিনিও শামিল হলেন প্রতিবাদে। টুইটবার্তায় পাপন আরো লেখেন, ‘আসাম যেভাবে জ্বলছে, সেটা দেখা সত্যিই খুব বেদনাদায়ক। মানবতা আক্রান্ত। বছরের পর বছর ধরে আসামে এই অনুপ্রবেশ ঘটেই চলেছে। এটা আমাদের কাছে প্রাপ্য নয়। আসামের বহুত্ববাদ কীভাবে রাজ্যের সংস্কৃতির সঙ্গে আষ্ঠেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে, সেদিকটাও দেখতে হবে।’

তার ঝুলিতে এই মুহূর্তে বলিউডের বেশ কিছু গুরুত্বপূর্ণ গান রয়েছে। যেমন, ‘জিয়ে কিঁউ’, ‘মোহ মোহ কে ধাগে’, ‘হামনাবা’, ‘বুলেয়া’ এবং আরও বেশ কিছু গান। রয়েছে কিছু বাংলা গানও।

ad

পাঠকের মতামত

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *